দেশ

ব্রেকিং নিউজ: দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে বেরিয়ে এল সুপ্রিম কোর্টের রায়! অযোধ্যায় বিতর্কিত জমি পাচ্ছেন হিন্দুরাই তৈরি হবে রাম মন্দির…


টানা শুনানির পর অযোধ্যা মামলার শুনানি বেরিয়ে এলো শনিবার দিন। এই নিয়ে আজ শনিবার দিন সকাল সাড়ে 10 টায় চূড়ান্ত রায় ঘোষণা ছিল দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের। অনেকেই মনে করেছিলেন, পরের সপ্তাহে আসতে পারে এই রায়। তবে এ বিষয়ে দেরি করতে নারাজ ছিলেন প্রধান বিচারপতি। যেমন কী ভারতের ইতিহাসে এক অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছিল অযোধ্যা জমি মামলার রায়। প্রায় এক শতাব্দীর ও বেশি পুরনো মামলা হল অযোধ্যা।

চূড়ান্ত পর্বে টানা 40 দিন ধরে চলেছে শুনানি। গত জানুয়ারি মাসে 5 জন বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ গঠন করে সুপ্রিম কোর্ট। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের সঙ্গে ছিলেন বিচারপতি অশোক ভূষণ, ডিওয়াই চন্দ্রচূড়, এসএ বোবদে এবং এস আবদুল নাজির। তবে সওয়াল-জবাব শুরুর আগে আদালতের বাইরে মীমাংসার জন্য আরও একবার চেষ্টা করে শীর্ষ আদালত তবে সুফল মেলেনি। তবে আজকে সেই প্রায় এক শতাব্দীরও বেশি পুরনো মামলার সমস্যার সমাধান হয়ে গেল। এই নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের তরফ থেকে 3-4 মাসের মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকারকে বিসেষ স্কিম তৈরি করার নির্দেশ দেওয়া হল।

যাতে বিতর্কিত জমি মন্দির পক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয় ও অন্য পাঁচ একর জমি সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে দেওয়া হয়। অর্থাৎ বিতর্কিত জমি বাদে অযোধ্যায় 5 একর জমি দেওয়া হবে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে।সেখানে তৈরি হতে পারে মসজিদ। তবে অযোধ্যার বিতর্কিত জমি পাচ্ছেন হিন্দুরাই যেখানে তৈরি করবেন তারা রাম মন্দির। আপাতত 1885 সাল পর্যন্ত যা প্রমান পাওয়া গেছে তাতে জানা গেছে হিন্দুরাই ওই স্থানের অন্দরেও প্রবেশ করেছে।

এরই সাথে আরও বলা হয়েছে 1856 পর্যন্ত নামাজ পড়ার যে এতদিন ধরে গল্প উঠে আসছিল তার কোনো যোগ্য প্রমাণ পাওয়া যায়নি। পরবর্তীকালে প্রার্থনার জন্য ব্যবহার করা হতো সেই মসজিদ বলে জানান সুপ্রিম কোর্ট। তবে হিন্দুদের বিশ্বাস এই ডোমের নিচেই ছিল নাকি রামের জন্মস্থান।তবে যাই হোক এখন সুপ্রিমকোর্টের রায় হিন্দুদের পক্ষে বেরিয়ে এলো আপাতত এই অযোধ্যার বিতর্কিত জমির মধ্যে তৈরি হতে চলেছে রাম মন্দির। আগামী তিন মাসের মধ্যে শুরু হয়ে যাবে এর কাজ। উল্লেখ্য এই বিষয়ে রায় ঘোষণা করার আগে সব রাজ্য কে সতর্ক করে দিয়েছে কেন্দ্র অযোধ্যা সহ গোটা উত্তরপ্রদেশ করে মুড়ে দেওয়া হয়েছে কড়া নিরাপত্তার চাদরে।

চারিদিকে নিরাপত্তা প্রবল কড়াকড়ি। সব রাজ্যকে সতর্ক করে ইতিমধ্যেই চিঠি পাঠিয়েছেন কেন্দ্র। উত্তরপ্রদেশে পৌঁছে দেয়া হয়েছে প্রায় 4000 আধাসেনা। শুধু তাই নয় অযোধ্যা জেলাতে সুরক্ষার খাতিরে মোতায়েন করা হয়েছে 12 হাজার পুলিশ কর্মী।

Related posts

Close